পাতা

অর্জন

  • জাতিসংঘ-এর অঙ্গ সংগঠন UNESCO এর সারাবিশ্বে ২১ টি  Resource Distribution and Training Centre (RDTC) রয়েছে। টিচার্স ট্রেনিং কলেজ ঢাকা তার মধ্যে অন্যতম।
  • শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের টিকিউআই-২ প্রকল্প কর্তৃক টিচার্স ট্রেনিং কলেজ ঢাকা ইংরেজি বিষয়ের ‘সেন্টার অফ এক্সেলেন্সি’র মর্যাদা পেয়েছে। এ এক অনন্য অর্জন।
  • জাতীয় পর্যায় শিক্ষা ক্ষেত্রের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ প্রশিক্ষণসমূহ (যেমন: এডভান্সড আইসিটি মাস্টার ট্রেইনার, অটিজম সচেতনতা বিষয়ক মাস্টার ট্রেইনার প্রশিক্ষণ, লাইফ স্কিল এডুকেশন বিষয়ক মাস্টার ট্রেইনার ট্রেনিং) এখানে হয়ে থাকে।
  • এ কলেজের শিক্ষকরা জাতীয় পর্যায় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ নীতি নির্ধারণী ফোরামে কাজ করে আসছেন। যেমন: প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও শিক্ষক প্রশিক্ষণের শিক্ষাক্রম প্রণয়ন; এনসিটিবি’র পুস্তক রচনা; শিক্ষক নির্দেশিকা প্রণয়ন; মহামাণ্য রাষ্ট্রপতির ভাষণ অনুবাদ; জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন কাউন্সিল ও ফোরামে দায়িত্ব পালন ইত্যাদি।
  • তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ক্ষেত্রে জাতীয় পর্যায় এ কলেজের অবদান অনস্বীকার্য। যেমন: সরকারের শিক্ষা বিষয়ক ওয়েবসাইটের ইন্টারফেস তৈরি, ইন্টারএক্টিভ ডিজিটাল বুক তৈরি, মাধ্যমিক স্তরের ই-লার্নিং ম্যাটেরিয়ালের স্ক্রিপ্ট রচনা ইত্যাদি।
  • এ কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা শিক্ষার জগতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছেন। তারা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে মাঠ পর্যায়ের শিক্ষা প্রশাসনে সুনামের সাথে কাজ করছেন।
  • বিজ্ঞান লেখক আবদুল্লাহ আল মুতী শরফুদ্দিন, ঔপন্যাসিক কাজী ইমদাদুল হক, লেখিকা ড. মঞ্জুশ্রী চৌধুরী এ কলেজে শিক্ষকতা করেছেন। বিশিষ্ট লেখক আবুল ফজল এ কলেজের ছাত্র ছিলেন।
  • স্বাধীনতা উত্তর মাধ্যমিক শিক্ষাকে উন্নয়নের যে সমস্ত প্রকল্পগুলো কাজ করেছে তার প্রতিটিতেই টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, ঢাকা অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে, বিশেষ করে SEDP, SESDP, PROMOT এর  মত প্রকল্পে।
  • বাংলাদেশে প্রথম ফ্লিপড ক্লাস রুমের ধারণা টিচার্স ট্রেনিং কলেজ প্রয়োগ ও বিস্তরণ করে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে ৭ম শ্রেণির বিজ্ঞান বিষয়ের ১০০টি পাঠের জন্য ই-ম্যাটেরিয়াল প্রস্তুত করা হয়েছে যা ক্লাসের পূর্বেই শিক্ষার্থীদের মেমরী কার্ডের মাধ্যমে দেওয়া হয় পাঠ সম্পর্কে পূর্ব ধারণা পাওয়ার জন্য। ভিডিওগুলো কলেজের ইউটিউব চ্যানেলে আছে।

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter